কালজিরা তেল 200gm

৳ 500.00

কালোজিরার উপকারিতা অনেক কারণ প্রতি গ্রাম কালজিরায় যেসব পুষ্টি উপাদান রয়েছে তা নিন্মরূপ­-

* প্রোটিন ২০৮ মাইক্রোগ্রাম,
* ভিটামিন-বি ১.১৫ মাইক্রোগ্রাম
* নিয়াসিন ৫৭ মাইক্রোগ্রাম
* ক্যালসিয়াম ১.৮৫ মাইক্রোগ্রাম
* আয়রণ ১০৫ মাইক্রোগ্রাম
* ফসফরাস ৫.২৬ মিলিগ্রাম
* কপার ১৮ মাইক্রোগ্রাম
* জিংক ৬০ মাইক্রোগ্রাম
* ফোলাসিন ৬১০ আইউ

Description

কালোজিরার পরিচিতি

কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা অপরিসীম । প্রথমে আমরা কালোজিরার পরিচিতি জানব । বাংলায় বলা হয় কালোজিরা ইংরেজিতে বলা হয় also known as Black Cumin, Nigella, Kalojeere,  Black  Caraway এবং Kalonji. ইহা একটি মাঝারি আকৃতির মৌসুমী গাছ, শুধু একবার ফুল ও ফল হয়। এর বৈজ্ঞানিক নাম Nigella Sativa Linn। এর স্ত্রী, পুরুষ দুই ধরনের ফুল হয়, রং সাধারণত হয় নীলচে সাদা (জাত বিশেষে হলুদাভ হয়), পাঁচটি পাঁপড়ি বিশিষ্ট । তিন-কোনা আকৃতির কালো রং এর বীজ হয় । গোলাকার ফল হয় এবং প্রতিটি ফলে ২০-২৫ টি বীজ থাকে । আয়ুর্বেদীয় , ইউনানী, কবিরাজী ও লোকজ চিকিৎসায় ব্যবহার হয়। মশলা হিসাবে ব্যাপক ব্যবহার হয়ে থাকে, এটি পাঁচ ফোড়নের একটি উপাদান। বীজ থেকে তেল পাওয়া যায়।

কালোজিরার ব্যবহার

কালোজিরা বিভিন্ন ধরনের রান্নায় কম বেশি এর ব্যবহার হয়ে থাকে। ইহা বিভিন্ন রোগের মহাঔষধ হিসেবে পরিচিত । বিশ্বজুড়ে প্রাচীনকাল থেকে এটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। নিয়মিত কালোজিরা খেলে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, একজিমা, এলার্জি ইত্যাদি নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়াও কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না ।

কালোজিরার রাসায়নিক উপাদান

কালোজিরায় ভিটামিন, স্ফটিকল নাইজেলোন, অ্যামিনো অ্যাসিড, স্যাপোনিন, ক্রুড ফাইবার, প্রোটিন, ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো লিনোলেনিক, ওলিক অ্যাসিড, উদ্বায়ী তেল, আয়রন, সোডিয়াম, পটাসিয়াম ও ক্যালসিয়াম রয়েছে।এসব উপাদান কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতাতে ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখে।

কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা ইসলাম কী বলছে

বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) বলেছেন: “ তোমরা কালোজিরা ব্যবহার করবে, কেননা এতে একমাত্র মৃত্যৃ ব্যতীত সর্বরোগের মুক্তি এতে রয়েছে”।

তিরমিযী,বুখারী,মুসলিম থেকে নেয়া—
হযরত কাতাদাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত আছে, “প্রতিদিন ২১টি কালোজিরার ১টি পুটলি তৈরী করে পানিতে ভিজাবেন এবং পুটলির পানির ফোঁটা এ নিয়মে নাকে ব্যবহার করবে-“প্রথমবার ডান নাকের ছিদ্রে ২ ফোঁটা এবং বাম নাকের ছিদ্রে ১ ফোঁটা। দ্বিতীয়বার বাম নাকের ছিদ্রে ২ ফোঁটা এবং ডান নাকের ছিদ্রে ১ ফোঁটা। তৃতীয়বার ডান নাকের ছিদ্রে ২ ফোঁটা ও বাম নাকের ছিদ্রে ১ ফোঁটা।”

হযরত আনাস (রাঃ) বর্ণনা করেন, “নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করেন, যখন রোগ-যন্ত্রণা খুব বেশী কষ্টদায়ক হয় তখন এক চিমটি পরিমাণ কালোজিরা নিয়ে খাবে তারপর পানি ও মধু সেবন করবে।”
– মুজামুল আওসাতঃ তাবরানী।

তাই নিয়মিত কালোজিরা সেন করুন, কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা লাভ করুন।

জেনে নিন কালো জিরার স্বাস্থ্য উপকারিতা

১। ডায়াবেটিস

ডায়াবেটিস একটি বিপজ্জনক রোগ । কালোজিরার তেল ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ রাখতে সহায়তা করে। প্রতিদিন সকালে এক কাপ চায়ের সঙ্গে আধা চা চামচ তেল মিশিয়ে পান করুন।

২। ডায়েটের জন্য কালোজিরা

ডায়েটের জন্য কালোজিরা দারুণ কাজ করে। রুটি ও তরকারিতে ব্যবহার করতে পারেন। অনেকেই মধু ও পানির সঙ্গে মিশিয়ে খেয়ে থাকেন। কালোজিরা ওটমিল ও টক দইয়ের সঙ্গে যুক্ত করে খেলে বেশ উপকার পাবেন।

৩।ত্বকের অনেক সমস্যার সমাধান পেতে কালজিরা

লেবুর রস ও কালোজিরা তেল একসঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করলে ত্বকের অনেক সমস্যার সমাধান পেতে পারেন। লেবুর রস ও কালোজিরার তেল মিশিয়ে দিনে দু’বার মুখে লাগান। ত্বকে ব্রণ ও দাগ অদৃশ্য হয়ে যাবে।

৪। কালোজিরা তেল মাথাব্যথার জন্য

কালোজিরা তেল মাথাব্যথার জন্য একটি অব্যর্থ মহৌষধ। এটি মাথার ত্বকের ম্যাসাজ করলে মাথা ব্যাথা দূর হয়ে যায়।

৫।  জয়েন্টের ব্যথা থেকেও মুক্তি পেতে

সরিষার তেলের সঙ্গে কালোজিরা তেল গরম করে হাঁটু বা অন্যান্য জয়েন্টগুলোতে ম্যাসাজ করতে পারেন। এটি জয়েন্টের ব্যথা থেকেও মুক্তি পেতে সহায়তা করবে।

৬। লিভার ও কিডনি ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে

কালোজিরায় প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে যা প্রদাহ, স্ট্রেস হ্রাস করার ক্ষমতাসহ লিভারকে সুরক্ষিত করতে সহায়তা করে। কালোজিরা রাসায়নিকের বিষাক্ততা কমাতে পারে। লিভার ও কিডনি ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে।

৭। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে কালোজিরা। নিয়মিত কালোজিরা খেলে শরীরের প্রতিটি অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সতেজ থাকে। এতে করে যে কোনও জীবানুর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে দেহকে প্রস্তুত করে তোলে এবং সার্বিকভাবে স্বাস্থ্যের উন্নতি করে।

৮। সর্দি-কাশিতে আরাম পেতে

সর্দি-কাশিতে আরাম পেতে, এক চা চামচ কালোজিরার তেলের সঙ্গে ১ চা চামচ মধু বা এক কাপ লাল চায়ের সঙ্গে আধ চা চামচ কালোজিরের তেল মিশিয়ে দিনে তিনবার খান। পাতলা পরিষ্কার কাপড়ে কালিজিরা বেঁধে শুকালে, শ্লেষ্মা তরল হয়।

৯।  জ্বর, ব্যথা, সর্দি-কাশি কমার জন্য

এক চা-চামচ কালোজিরার সঙ্গে তিন চা-চামচ মধু ও দুই চা-চামচ তুলসি পাতার রস মিশিয়ে খেলে জ্বর, ব্যথা, সর্দি-কাশি কমে। বুকে কফ বসে গেলে কালিজিরে বেটে, মোটা করে প্রলেপ দিন।

১০। যারা হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায়

যারা হাঁপানি বা শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় ভুগে থাকেন তাদের জন্য কালোজিরা অনেক বেশি উপকারী। প্রতিদিন কালোজিরার ভর্তা রাখুন খাদ্য তালিকায়। কালোজিরা হাঁপানি বা শ্বাস কষ্টজনিত সমস্যা দূর করে।

নিয়মিত কালোজিরা খেলে দেহে রক্ত সঞ্চালন ঠিকমতো হয়। এতে করে মস্তিস্কে রক্ত সঞ্চালনের বৃদ্ধি ঘটে; যা আমাদের স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

১১।  স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করতে

নিয়মিত কালোজিরা খাওয়ালে দ্রুত শিশুর দৈহিক ও মানসিক বৃদ্ধি ঘটে। কালোজিরা শিশুর মস্তিষ্কের সুস্থতা এবং স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতেও অনেক কাজ করে।

১২। যেসব মায়েদের বুকে পর্যাপ্ত দুধ নেই, তাদের জন্য মহৌষধ কালোজিরা

যেসব মায়েদের বুকে পর্যাপ্ত দুধ নেই, তাদের মহৌষধ কালোজিরা। প্রসূতি মায়েরা প্রতি রাতে শোয়ার আগে ৫-১০ গ্রাম কালোজিরা মিহি করে দুধের সাথে খেলে মাত্র ১০-১৫ দিনে দুধের প্রবাহ বেড়ে যাবে। এছাড়া এ সমস্যা সমাধানে কালোজিরা ভর্তা করে ভাতের সাথে খেলেও ভাল। এছাড়া ১ চা-চামচ কালোজিরার তেল সমপরিমাণ মধুসহ দিন ৩বার করে নিয়মিত খেলেও শতভাগ উপকার পাওয়া যায়।

১৩। চুলের বৃদ্ধি এবং চুল পড়া বন্ধ করার জন্য

এছাড়াও নিয়মিত কালোজিরা সেবনে চুলের গোড়ায় পুষ্টি ঠিকমতো পায়, ফলে চুলের বৃদ্ধি ভালো হয় এবং চুল পড়া বন্ধ হয়। অনেকেরই চুল পড়া, দুর্বল চুল, শুষ্ক চুল ইত্যাদি নানা রকম সমস্যা থাকে। এক্ষেত্রে সপ্তাহে কয়েকবার কালোজিরার তেলের ব্যবহার চুলের সমস্যাকে দূর করতে পারে।এটি নিয়মিত রান্নায় ব্যবহার করতে পারেন। আরও ভাল প্রভাবের জন্য পানি দিয়ে সেদ্ধ করে পান করুন। পারলে প্রতিদিন সকালে কাঁচা চিবিয়ে খান।

Easy Pay – EMI

* The minimum order value to avail the EMI payment option is BDT 5,000.
* Select EMI option at the time of payment.
* Final EMI is calculated on the total value of your order at the time of payment.
* The Bank charges annual interest rates according to the reducing monthly balance. In the monthly reducing cycle, the principal is reduced with every EMI and the interest is calculated on the outstanding balance.
* While you will not be charged a processing fee for availing MegaiShop’s EMI option, the interest charged by the bank shall not be refunded by MegaiShop.
* You may check with the respective bank/issuer on how a cancellation, refund or pre-closure could affect the EMI terms, and what interest charges would be levied on you for the same.
* Rates can be changes with Bank’s policies.
EMI with Interest:
* 3 months 3%
* 6 months 4.5%
* 9 months 6.5%
* 12 months 8.5%
* 18 months 11.5%
* 24 months 15.5%
* 30 Months 16.5%
* 36 Months 19.5%
*rate are also depending on cards

EMI Calculator

Vendor Information

  • Store Name: Shuddho
  • Vendor: Shuddho
  • Address: Dhaka
    Dhaka
  • No ratings found yet!
0